আমি তাকে আমার মত আপন করে চাই

তার চোখের ভাষায় স্বপ্ন ভাসে, কাব্য কবিতা,

রঙ্গিন ফুলে হাসছে যেন সবুজ বনের লতা।

একটু খানি তাকিয়ে যখন চোখটা নামায় লাজে

মনের মাজে হাজার তারের সুর ঝঙ্কার বাজে।

ঠোঁটের কোনায় বাকা হাসি, নদীর কলতান,

কলকলিয়ে হাসলে পরে উছলে উঠে প্রাণ।

কথায় তার জাদু আছে, কি এক আপন সুর,

একটু খানি প্রেম আলাপে দুঃখ্ হয়ে যায় দূর।

আপন মনে ছন্দ তুলে হেটে যখন যায়,

ঝিরিঝিরি বায়ুর সুরে পূর্ণতা যে পায়।

তার চুলের ঐ কালোর মাঝে সূর্যের ঝলকানি,

সবুজ শ্যামল মাঠের মায়া তার ঐ বদনখানি।

বাকা দেহের বাকে বাকে কি এক আহ্বান,

তুলতুলে ঐ গালের পরে আদুরে আহ্বান।

মনটা তার খারাপ হলে, আকাশ উঠে কেঁদে,

ফুলগুলো সব ম্লান হয়ে যায়, ঢেউ থেমে যায় নদে।

চোখ দিয়ে তার জল গড়ালে, জগৎ অন্ধকার,

পাখপাখালির ডাক যেন ভীষণ হাহাকার।

এমন করে আপন করে ভাবিনি কো আগে,

কেন তাকে ওমন করে এত আপন লাগে?

ঐ মেয়ের মাঝে আমি আমায় খুঁজে পাই।

আমি তাকে আমার মত আপন করে চাই!

Advertisements