৮ অক্টোবর, ২০১৪ বেশতো ব্লগে প্রথশ প্রকাশিত

কিছুটা সম্পাদিত।

সেই পরিবর্তনটাই আসলে টেকশই হয় যেটা মন থেকে হয়। আর মন থেকে যেই পরিবর্তনটা আসে সেটার প্রকাশ ঘটে মানুষের কথা এবং কাজে।

আপাত দৃষ্টিতে মনে হচ্ছে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের বিষয়ে সমাজ বেশ পাল্টে গিয়েছে। সরকারের উঁচু থেকে যে ভাবে নীতিমালা আর আইন করা হচ্ছে, উপরের মহলে ‘প্রতিবন্ধী’ শব্দটা যে ভাবে উচ্চারিত হচ্ছে তাতে করে এমনটা ধারণা করাটা স্বাভাবিক। কিন্তু যখনই মানুষগুলোর কথা শুনি তখনই বুঝতে পারি পরিবর্তনকে মন থেকে হয়নি, ইতিবাচক ভাবে হয়নি। কল্যাণের ধারণা থেকে বের হয়ে এসে আমরা অধিকারের কথা বলতে এখনো শিখিনি কিংবা অধিকার দিতে হবে সেটা বিশ্বাস করা শুরু করিনি।

আমরা যখন প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের বিষয়ে কথা বলি তখন অসচেতন ভাবে এমন কিছু শব্দ ব্যবহার করি যেগুলোর ভিন্ন কিছু অর্থ থাকে যা প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের কষ্ট দেয়। এমন কিছু শব্দ হল:

১) Normal : অনেক সময়ই আমরা এই শব্দ ব্যবহার করে সাধারণ মানুষদের বুঝানোর চেষ্টা করি। যেমন আপনি হয়তো বললেন, “প্রতিবন্ধীরা এমন অনেক কিছুই পারে যা আমরা নরমাল মানুষরা পারি না।” আপনি এখানে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের ইতিবাচক ভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করলেন। কিন্তুএকবার চিন্তা করে দেখুন আপনি যদি normal হন তাহলে আমরা খুব স্বাভাবিক ভাবেই abnormal হয়ে যাই। এটা আমাদের জন্য খুব কষ্টদায়ক। আমরা প্রতিবন্ধী ব্যক্তি হতে পারি কিন্তু তাই বলে আমরা abnormal না।

২) সুস্থ্য: এটাও normal শব্দটার মতই। আপনি সুস্থ্য হলে আমরা অসুস্থ্য। আমাদের শারীরিক, মানসিক, বা ইন্দ্রীয়গত সমস্যা আমাদের জন্য প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেছে। কিন্তু তাই বলে আমরা অসুস্থ্য না। এটাই আমাদের সাধারণ অবস্থা। তাই আপনি সুস্থ্য আর আমরা অসুস্থ্য সেটা ভাবার কোন সুযোগ নেই।

৩) স্বাভাবিক: ধরুন আপনি খুব গুরুত্বের সাথে বললেন, “প্রতিবন্ধীদের স্বাভাবিক মানুষের মতই শিক্ষার অধিকার আছে।” আপনার কথাটা কিন্তু খুবই চমৎকার। কিন্তু এই এক ‘স্বাভাবিক’ শব্দ আমাদের কাছে বাক্যটাকে কটু করে দিয়েছে। আপনারা যদি স্বাভাবিক হন তাহলে আমরা প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা কি অস্বাভাবিক? চিন্তা করে দেখবেন একবার!

৪) ভাল মানুষ: এরকম আরেকটা শব্দ হল “ভাল মানুষ”। আমরা নিশ্চয় খারাপ মানুষ না।

এরকম আরও কিছু শব্দ আছে যেগুলো বিপরীত অর্থ আছে। আপনি নিশ্চয় বিপরীত আর্থ বোঝানোর জন্য কথা বলেন না। কিন্তু আপনার অগোচরেই সেগুলো প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য কষ্টের কারণ হয়ে যায়। তাই এই ধরনের শব্দগুলো যারাই উচ্চারণ করুক না কেন আমরা চেষ্টা করি সাথে সাথে তাদের সচেতন করে দিতে যাতে করে তারা ভবিষ্যতে এই ধরেনর শব্দ উচ্চারণ করা থেকে বিরত থাকে।

প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের কি নামে সম্বোধন করা হবে তা নিয়ে জাতিসংঘে তীব্র বিতর্কের পর সিদ্ধান্ত হয় ‘Person with Disability’ বলে সম্বোধন করা হবে। আমরা এই ‘Person with Disability’ এর বাংলা অনুবাদ করি ‘প্রতিবন্ধী ব্যক্তি’।

প্রশ্ন করতে পারেন “আপনি না হয় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের “প্রতিবন্ধী ব্যক্তি” বললেন। অন্যদের কি বলবেন?”

আমরা প্রতিবন্ধী ব্যক্তি। বাকী সবাইকে আমরা “অপ্রতিবন্ধী ব্যক্তি” বলে সম্বোধন করি। এ মাধ্যমে উভয় দলকেই সম্মানের সাথে সম্বোধন করা হয়।
আশা করি আপনারা ভবিষ্যতে এই বিষয়টি লক্ষ্য রাখবেন এবং সচেতন ভাবে এই ধরনের শব্দগুলো উচ্চারণ করা থেকে বিরত থাকবেন। এর ফলে অনেক মানুষ আপনাকর অগোচরেই মনোকষ্ট থেকে বেঁচে যাবে।

আর আপনি যদি সচেতন ভাবে ‘প্রতিবন্ধী ব্যক্তি’ শব্দদ্বয় উচ্চারণ করেন তাহলে আপনার ভেতরের ইতিবাচক পরিবর্তনকে কাউকে চোখে আঙ্গুল দিয়ে বলে বুঝাতে হবে না। সবাই বুঝতে পারবে আপনি ইতিবাচক পরিবর্তনের দিকে হাঁটছেন।

Advertisements